রেজি: নং - আবেদিত                                                                                        শনিবার,  ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং,  ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,  রাত ৪:৫৩

জেড. এইচ. সিকদার ইউনিভার্সিটি থেকে ১৩ জন শিক্ষার্থী বার কাউন্সিলের চূড়ান্ত পরীক্ষায় কৃতকার্য।

December 24, 2018 , 11:32 pm

রুপক চক্রবর্তী শরীয়তপুরঃ

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হওয়ার তিন ধাপের পরীক্ষা অথাৎ
প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক এই ধাপের পরীক্ষায় সুনামের সাথে কৃতকার্য হয়েছেন শরীয়তপুর জেলার ভেদেরগঞ্জের কার্তিকপুরে অবস্থিত জেড. এইচ. সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এর আইন বিভাগের ১ম ও ২য় ব্যাচের ১৩ জন শিক্ষার্থী।

জেড. এইচ. সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এর আইন বিভাগের ১ম ও ২য় ব্যাচের যে সকল শিক্ষার্থী শিক্ষানবিশ আইনজীবী থেকে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল এর চূড়ান্ত পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়েছেন তারা হলেন মোঃ রাশেদ সিকদার, মোঃ রুহুল আমিন, মোঃ বিল্লাল হোসেন, কামরুন নাহার লিপি, আব্দুল্লাহ আল মামুন, আলমগীর হোসেন, নূর মোহাম্মদ ফয়েজ, জয়নুব আক্তার, সাবেরা নুর সাথী, ইসরাত জাহান জুথী, সাদিয়া আক্তার শিলা, হোসনেয়ারা এবং আনোয়ার হোসেন।

জেড. এইচ. সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এর আইন বিভাগের ২য় ব্যাচের প্রাক্তন ছাত্র আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আজ যে সাফল্য অর্জন করেছি তা অত্যন্ত আনন্দের বিষয়। আজ আমার নিজের একটি গর্বের পরিচয় সৃষ্টি হয়েছে, গর্বের সহিত আইনজীবী হিসেবে নিজের পরিচয় দিতে পারবো। আজ এই মহান দিনে আমি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই আমার বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ কে এবং আমার আইন বিভাগের সকল শিক্ষক দের প্রতি। আমি মনে করি আইন বিভাগের শিক্ষকদের অসীম প্রচেষ্টা, তাদের অনুপ্রােরনা আজ আমি সহ আমাদের আইন বিভাগের ১ম ও ২য় ব্যাচের ১৩ জন শিক্ষার্থীর এ অর্জনের পিছনে অসীম ভূমিকা রয়েছে।

জেড. এইচ. সিকদার ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এর আইন বিভাগের
চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক মো. মনির হোসেন বলেন, আজ আইন বিভাগ তথা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ব্যাক্তিবর্গ অত্যন্ত আনন্দিত কেননা এই প্রথম বারের মতোই আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ১ম ও ২য় ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বার কাউন্সিল এর পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেন। যারা অংশগ্রহণ করেছিলেন তাদের মধ্যে ১৩ জন চূড়ান্ত পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়েছেন। এটা অবশ্যই আমাদের কাছে গর্বের ও আনন্দের বিষয়। আমি আইন বিভাগের পক্ষ থেকে কৃতকার্য সকলকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমি বিশ্বাস করি আমাদের শিক্ষার্থীরা দেশ ও দশের জন্য নিবেদিত প্রাণ হয়ে জনগণের কল্যানে কাজ করবে এবং আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা বৃদ্ধি করবে।

Total View: 142

    আপনার মন্তব্য


[fbcomments]