রেজি: নং - আবেদিত, প্রতিষ্ঠাকাল: ১মার্চ ২০১৪                                           শনিবার,  ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  রাত ১১:৫৫

আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট সুলতান হোসেন মিয়া আর নেই

October 8, 2017 , 9:00 am

22365353_1911148779150008_8522599083002362895_nআলহাজ্ব এ্যাডভোকেট সুলতান হোসেন মিয়া গতকাল ০৭-১০-১৭ ইং সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে বাংলাদশে মডেকিলে কলেজ হাসপাতালে শষে নঃিশ্বাস ত্যাগ করনে (ইন্না লল্লিাহি ওয়া ইন্না ইলাইহী রাজউিন)। মৃত্যুকালে তাহার বয়স হয়েছিল প্রায় ৯০ বছর। তিনি শরীয়তপুর জেলার পালং থানাধীন চন্দ্রপুর ইউনিয়নে ঐতিহ্যবাহী মিয়া পরিবারে ১৯৩০ সালে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা মৃত আলী হোসেন মিয়া (সাবেক চেয়ারম্যান চিকন্দী ইউনিয়ন পরিষদ) মাতা-নজিমন নেছা। তিনি মাহামুদপুর ইউনিয়নের স্থানীয় হাই স্কুল হইতে ১৯৫০ সালে মেট্রিকুলেশন পরিÿায় পাশ করেন। তারপর তৎকালীন হাবিব ব্যাংক লিঃ গুলিস্থান শাখায় চাকুরী করেন। উক্ত ব্যাংকে ৩/৪ বছর চাকুরী ছেড়ে পূনরায় মাদারীপুর নাজিম উদ্দিন কলেজে ভর্তি হন এবং উক্ত কলেজ হইতে উচ্চ মাধ্যমিক ও বি এ পাশ করেন। এরপর মুক্তারশীপ এ ভর্তি হন। মুক্তারশীপ পাশ করে দীর্ঘদিন মাদারীপুর আদালতে শুনামের সহিত মুক্তার হিসাবে নিয়োজিত ছিলেন। সাব-ডিভিশন হিসাবে শরীয়তপুর এবং জেলা সৃষ্টি হওয়ার পরে শরীয়তপুর স্ব-পরিবারে চলিয়া আসেন এবং ১৯৮৪ সাল হইতে শরীয়তপুর জেলায় গুটি কয়েক আইনজীবীদের নিয়ে শরীয়তপুর জেলা আইনজীবী সমিতির একটি কাঠামো গড়িয়া তোলেন। তিনি ৬০ দশকের মাঝা-মাঝি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তার স্ত্রী একজন গৃহিনী। তার ৩ কন্যা ও ১ পুত্র,  বড় কন্যা তার জীবদ্দশায় ইন্তেকাল করিয়াছেন। তার পুত্র ইকবাল হোসেন অপু মিয়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য এবং শরীয়তপুর ও মাদারীপুরের একজন স্বনাম ধন্য নেতা। আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট সুলতান হোসেন মিয়া শরীয়তপুর জেলা আইনজীবী সমিতির বিভিন্ন পদসহ বেশ কয়েক বার বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় সভাপতি নির্বাচিত হইয়াছেন এবং নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করিয়াছেন। দলমত নির্বিশেষে সিনিয়র ও জুনিয়র সকল আইনজীবিদের কাছে তিনি ছিলেন অভিভাবক। তিনি ছাত্র জীবনে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর হিসাবে আওয়ামী রাজনীতিতে বিভিন্ন গুরুত্ব দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন। শরীয়তপুর জেলা প্রতিষ্ঠায় তার ভূমিকা অন্যতম। তিনি বর্তমানে শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি, শরীয়তপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সহ সভাপতি সহ জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। এক কথায় তিনি ছিলেন শরীয়তপুর জেলার সর্বস্থরের মানুষের অভিভাবক। তার মৃত্যুতে শরীয়তপুর জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। শরীয়তপুর সর্বস্থ শোকের ছায়া নেমে এসেছে। রবিবার বাদ জোহর শরীয়তপুর জেলা আইনজীবী সমিতির প্রাঙ্গনে তার প্রথম যানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য, ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি.এম মোজাম্মেল হক এমপি, শরীয়তপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেদুর রহমান খোকা সিকদার ও সাবেক সভাপতি আব্দুর রব মুন্সি, সাধারণ সম্পদক বাবু অনল কুমার দে, জাজিরা উপজেলা চেয়ারম্যান মোবারক আলী সিকদার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল হাসেম তপাদার সাবেক এমপি সরদার নাসির উদ্দিন কালু, আওয়ামীলীগ নেতা নুর মোহাম্মদ কোতোয়াল  এবং প্রশাসনের পÿে জেলা প্রশাসক মোঃ মাহামুদুল হোসাইন, পুলিশ সুপার সাইফুলøাহ আল-মামুন, জুডিসিয়াল ম্যাজিঃ মোঃ মনিরুজ্জামান সহ সরকারী কর্মকর্তা, বিজ্ঞ আইনজীবী গণ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেত্রীবৃন্দ। তার একমাত্র পুত্র আওয়ামীলীগ নেতা সকলের কাছে তার পিতার দোয়া চান। জানাজা শেষে বিভিন্ন সংগঠন শ্রদ্ধাঞ্জলী দেন। বাদ আছর তার নিজ গ্রাম চন্দ্রপুরে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তার লাশ দাফন করা হবে।22221618_1669198109770734_7479080921119475091_n

Total View: 1226