রেজি: নং - আবেদিত, প্রতিষ্ঠাকাল: ১মার্চ ২০১৪                                           বুধবার,  ৩রা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,  রাত ১১:১১

নড়িয়াতে মসজিদের ইমামের রহস্যজনক আত্মহত্যা

April 11, 2017 , 10:19 am

pic-01শরীয়তপুর গোসাইরহাট উপজেলার চরমনপুড়া গ্রামের মকবুল হোসেন সরদারের ছেলে তোফাজ্জল সরদার (১৭) বিষপান করে রহস্যজনক ভাবে আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল সোমবার রাতে মোক্তারের চর পূর্ব পোড়াগাছি ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষর্থী ও স্থানীয় মসজিদের পূর্ব পোড়াগাছি পাচুখারকান্দি বাইতুল আমান জামে মসজিদের মোয়াজ্জেম তোফাজ্জল সরদার এশার নামাজের পর রাত ৯টার সময় বিষপান করে রহস্যজনক ভাবে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

সাথে সাথে স্থানীয়রা মুলফতগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিতসক সেখান থেকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। রাত ১০ টার সময় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিতসক শেখ এহসান এর তিন ঘন্টা চিকিতসাধীন অবস্থায় তোফাজ্জল রাত ১টা ১০মিনিটে শেষ নিশ্বাসত্যাগ করে।
এ ঘটনায় তোফাজ্জলের পিতা মকবুল হোসেন সরদার, মসজিদের ইমাম ইউনুছ আলী ও মাদ্রাসর সুপার মোবারক হোসেন এদের কেউ কিছুই জানেনা বলে জানান।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তোফাজ্জল সরদার মোক্তারের চর পূর্ব পোড়াগাছি ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষর্থী পাশাপাশি স্থানীয় মসজিদের পূর্ব পোড়াগাছি পাচুখারকান্দি বাইতুল আমান জামে মসজিদের মোয়াজ্জেম। অত্র এলাকায় থেকে তিনি লেখাপড়া ও পেশা হিসেবে মসজিদের মোয়াজ্জেমের চাকরী করতো। প্রতিদিনের ন্যায় নিয়মিত মসজিদে গিয়ে এশার আযান এর পরে ফুরাডান বিষ পান করে।
তোফাজ্জল সরদারকে হাসপাতালে নিয়ে এলে জানা যায়, স্থানীয় রতন চোকিদারের মেয়ে মিশু ওরফে সখি র প্রেমের কথা।
স্থানীয়রা ধারনা করছে, মোক্তারেরচর পূর্ব পোড়া গাছি ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ছেলে ও মেয়ে এক সঙ্গে পড়া লেখার সূত্রে হয়তো মাদ্রাসার কোন ছাত্রীর প্রেমে পড়তে পারে।
ঘটনাটি জাজিরা ও নড়িয়া থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় হওয়ায়, জাজিরা থানাকে ফোন দিলে নজরুল ইসলাম এ বিষয়ে কিছু জানেন না ও কেউ অভিযোগও করেনি বলে জানান।
নড়িয়া থানার ওসি ইকরাম হোসেন বলেন, এব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। যে মসজিদে ঘটনাটি সেটা বিলাশপুরের মধ্যে জাজিরা থানা। তার পরেও ব্যাপারটি আমি দেখছি।

Total View: 887
নিউটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য: