রেজি: নং - আবেদিত                                                                             শনিবার,  ১১ই এপ্রিল, ২০২০ ইং,  ২৮শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,  রাত ১:১০

শরীয়তপুরের তরুণ কবি -সুপ্তা চৌধুরী রুপার ” মন আকাশে খুঁজবি কবে” বই মেলায় সাড়া ফেলেছে পাঠক মনে।

February 17, 2020 , 8:27 am

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ
সোহাগ খান সুজন।

একজন লেখকের প্রথম বই প্রকাশিত হওয়ার সঙ্গে শুধু আনন্দ-উচ্ছ্বাসের আবেগই জড়িত থাকে না। বরং বলা যায় এই প্রকাশেই থাকে লেখকের প্রথম আত্মপ্রকাশ, নির্দেশিত হয় তার জন্য নির্ধারিত স্বগতি পথটি, যা ক্রমে প্রস্ফূটিত করে তাঁর লেখক-ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ট্যকে’- তরুণ প্রজন্মের এক কবি ও লেখক সুপ্তা চৌধুরী তাঁর প্রথম বই প্রকাশের গল্পে এ কথা বলেন।

যেকোনো লেখকের জন্যই প্রথম বই প্রকাশের অভিজ্ঞতাটি গুরুত্বপূর্ণ এবং স্মরণীয় ঘটনা। একজন লেখকের জীবনে শত শত বই প্রকাশ হতে পারে। কিন্তু প্রথম বইটি প্রকাশ করতে গিয়ে লেখকের অর্জিত আনন্দ-বেদনার মুহূর্তগুলো কোনোভাবেই মুছে যায় না।লেখালেখির অভ্যাস আমার ছোটবেলা থেকেই। আমি পাইনি আমার কোনো পারিবারিক ও পারিপার্শ্বিক সাপোর্ট বা উৎসাহ বরং বাধা ছিল প্রচুর। শুধু মাত্র কিছু বন্ধুর অনুপ্রেরণায় আজ আমার বইটি সম্পূর্ণ নিজের পরিশ্রম একটি বাস্তব চিত্রে পরিনত হয়েছে।প্রেরণার পিছনে বন্ধু কথা সাহিত্যক ও উপন্যাসিক তৌফিক মিথুনের কথা না বললেই না।

তারই যোগানো সাহসে আজ আমার বিচ্ছিন্ন লেখাগুলো একছত্রে বাধা পরলো।আমি সত্যিই এতোটা আনন্দিত যে ভাবতেই আমার চোখে পানি চলে আসে।আমার হয়তো এতো সামর্থ্য নেই যে বিশাল প্রচারণার ভাগিদার হতে পারবো।কিন্তু সকলের দোয়া ও আশীর্বাদ থাকলেই হয়তো একদিন নিজের লক্ষ্যে পৌঁছে যাব।কবিতা এবং গান সবসময় মনের ভাষাগুলো যা আমরা গুছিয়ে বলতে পারিনা তারই বহিঃপ্রকাশ।তাই অনেকেরই হয়তো ভালো লাগবে বইটি।

আমি জানি আমার প্রথম লেখা কবিতার বইটিতে “মন আকাশে খুঁজবি কবে”অনেক ভুল ত্রুটি থাকবে।আমি এখনও শিখছি। জ্ঞানী মানুষদের আশে পাশে থাকার সৌভাগ্য হয়েছে আমার তাই আমি নিত্যদিন নতুন থেকে নতুন কিছু শিখেই চলেছি।আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।আমি যেন আমার লেখনির মাধ্যমেই দেশের সেবা করতে পারি।

কথাগুলো বলছিলেন তরুন প্রজন্মের কবি ও লেখক সুপ্তা চৌধুরী রুপা। সম্প্রতি ২১এর বই মেলায় তার একটি একক কাব্যগ্রন্থ পরিবার পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

বই এর নামঃ মন আকাশে খুৃঁজবি কবে।
লেখকঃ সুপ্তা চৌধুরী রুপা, ক্যাটাগরিঃ কাব্যগ্রন্থ।
পাবলিকেশনঃ পরিবার পাবলিকেশন্স। প্রচ্ছদঃ মৌমিতা রহমান। পাওয়া যাবেঃ বইমেলা ২০২০,
স্টল লোকেশনঃ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, লিটলম্যাগ চত্বর এর পাশে। স্টল নম্বরঃ ২৭০(ঢাকা) এছাড়াও খুলনা বই মেলায় স্টল নং ৫০,৫১ পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৭২
মূল্যঃ ১৭৫ টাকা (গায়ে মূল্য)।তবে বইমেলা চলাকালিন সময়ে ২৫% ডিসকাউন্টে ১৩০/-মাত্র।
এছাড়া লেখকের আরও বই বাউল মেলা সাহিত্য সংকোলন (বইমেলা ২০১৯), (দুই গুণে চার গল্প সংকোলন বইমেলা ২০২০)।

কিছু কথা………

“আচ্ছা কবিতার বই কেন পড়বো?!
কবিতা তো আমি বুঝি না বা আমার ভালো লাগে না।গল্প বা উপন্যাস হলে ভালো হতো।”

জি হ্যাঁ,আমিও আপনার সাথে একমত।
তবে চিন্তা করেন তো একটা কথা,যখন আপনার সামনে দেশ বা মানুষের উপর কোনো অন্যায় হচ্ছে অথচ আপনি কিছুই করতে পারছেন না বা বলতে পারছেন না,কারন,বলতে গেলেই আপনার কপালে খারাবি নিশ্চিত।অথচ আপনি বলতে চান।

তখন কবিতাই হবে আপনার একমাত্র প্রতিবাদের ভাষা।

ধরুন আপনি কাওকে প্রচন্ড ভালোবাসেন অথচ,মুখ ফুটে বলার মত সাহস পাচ্ছেন না বা নিজের আবেক বোঝাতে পারছেন না বা লজ্জা পাচ্ছেন।

তখন কবিতাই হতেপারে আপনার মুখের জবান।

ধরুন আপনার মনের প্রচন্ড কষ্টগুলো আপনি প্রকাশ করে হালকা হতে চান।কিন্তু বলে বুঝাতে পারছেন না কাওকে বা শোনারও কেও নাই।ভিতরের আহজারী কান্না হয়ে ঝড়ছে।

তখন কবিতাই আপনার বেদনা হালকা হবার অস্ত্র।

হয়তো আপনি আপনার বাবা মাকে ভিষন ভালোবাসেন।কিন্তু কখনও বাবা তোমাকে ভালোবাসি বা মা তোমাকে ভালোবাসি বা বাবা-মা আপনার কাছে কি এগুলো প্রকাশ করতে পরেননি, পারছেন না।

তখনএই কবিতাই হতে পারেএকটা ম্যাসেজ বাবা-মা এর জন্য।

সবচেয়ে বড় কথা মনের দুঃখ-কষ্ট,আনন্দ,কমেডি সবরকম আবেগ প্রকাশ করার অস্ত্রই হলো “কবিতা”।

এবারের বইমেলায় আমার প্রচেষ্টা আপনাদেরই মনের ভাষাগুলো কবিতার মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা।

” মন আকাশে খুঁজবি কবে”
পরিবার এর স্টলে (ঢাকাঃ২৭০ নং,খুলনাঃ৫০-৫১নং স্টল,ও ফরিদপুর এও)
মূল্য মাত্রঃ ১৩০/-(যা আপনার হাতের নাগালেই)

বই পড়ুন,প্রিয়জনকে বই উপহার দিন।
বই কিনে কেও কখনও দেওলিয়া হয়নি।আমি নিজেও প্রচুর বই পড়ি ও কিনি।অন্তত সংগ্রহ করার জন্য হলেও বই কেনা উচিত।কখনও না কখনও বই ই একমাত্র ও প্রকৃত সঙ্গী হয়।

ধন্যবাদ সবাইকে।
আপনাদেরই
সুপ্তা চৌধুরী রুপা।

Total View: 337

    আপনার মন্তব্য


[fbcomments]