রেজি: নং - আবেদিত, প্রতিষ্ঠাকাল: ১মার্চ ২০১৪                                           মঙ্গলবার,  ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  সকাল ১০:০৩

শরীয়তপুরে জমি বিরোধ নিয়ে বৃদ্ধ চাচাকে পিটিয়ে জখম।

March 23, 2020 , 8:09 am

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ
সুপ্তা চৌধুরী।

শরীয়তপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এসকান্দার মোল্যা (৭৫) নামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে গুরুতর জখমের অভিযোগ উঠেছে ভাতিজাদের বিরুদ্ধে। রোববার (২২ মার্চ) দুপুরে সদর উপজেলার কাশাভোগ গ্রামে এই হামলার ঘটনা ঘটে। গুরুতর অবস্থায় এসকান্দার মোল্যাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, এসকান্দার মোল্যার সাথে তার আপন ভাই আব্দুর রব মোল্যার জমি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে রোববার দুপুর ১২ টার দিকে দুই পরিবারের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে আব্দুর রব মোল্যার ছেলে শহীদুল মোল্যা (২৭) ও আফরিদ মোল্যা (২০) অতর্কিতভাবে লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে বৃদ্ধ চাচা এসকান্দার মোল্যাকে গুরুতর জখম করে বলে অভিযোগ ওঠে। হামলা ঠেকাতে গিয়ে এসকান্দার মোল্যার স্ত্রী রোকেয়া বেগমও হামলার শিকার হয়েছেন। তাদেরকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসকান্দার মোল্যার মাথায় ৫টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

এসকান্দার মোল্যার স্ত্রী রোকেয়া বেগম অভিযোগ করে বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে আব্দুর রব মোল্যার স্ত্রী রওশন আরার নির্দেশে তার ছেলে শহীদুল মোল্যা ও আফরিদ মোল্যা অতর্কিতভাবে লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে আমার স্বামী এসকান্দার মোল্যাকে গুরুতর জখম করেছে। হামলা ফিরাতে গেলে তারা আমাকেও লাঞ্ছিত করে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চেয়ে থানায় মামলা দায়ের করবো।

অভিযোগ অস্বীকার করে আব্দুর রব মোল্যার ছেলে শহীদুল মোল্যা বলেন, আমরা কেউ হামলা করিনি। জমি সংক্রান্ত বিরোধে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এসকান্দার মোল্যার ছেলে জাকির মোল্যা আমার মায়ের গায়ে হাত তোলে। আমরা এর প্রতিবাদ করতে গেলে জাকির মোল্যা লাঠি দিয়ে আমাদের উপর আঘাত করে। ওই লাঠির আঘাত এসকান্দার মোল্যার মাথায় লাগে। এতে তিনি আহত হন। এছাড়া জাকির মোল্যার হামলায় আমার মা গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, এ বিষয়ে এখনও কেউ থানায় অভিযোগ নিয়ে আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Total View: 486

    আপনার মন্তব্য


[fbcomments]