রেজি: নং - আবেদিত, প্রতিষ্ঠাকাল: ১মার্চ ২০১৪                                           রবিবার,  ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  সকাল ৮:২৪

শরীয়তপুরে মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার উপর সন্ত্রাসী হামলার সুষ্ঠু বিচারেরর দাবিতে মানববন্ধন।

June 5, 2018 , 6:00 pm

র্জানাল প্রতিবেদকঃ  পিরোজপুর  জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জনাব মোঃ আখলাকুর রহমান’র উপর তাঁর অফিস কক্ষে সন্ত্রাসী হামলার সুষ্ঠু বিচারেরর দাবিতে মানববন্ধন

সমাজসেবা অধিদফতর সরকারের অন্যতম জাতি গঠনমূলক দপ্তর। সমাজসেবা অধিদফতর সমাজের অনগ্রসর, দুস্থ, এতিম, প্রতিবন্ধী মানুষের কল্যাণে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। এ অধিদফতরের কর্মকর্তাগণ প্রশাসনের সাথে নিবিড় যোগাযোগ ও সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী অত্যন্ত দ্রুততা, দক্ষতা, সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে।

গত ৩ জুন মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার উপজেলার বড় হারজী গ্রামে হাজী গুলশানআরা শিশু সদনের ভূয়া বিলে স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করায় তাঁর অফিস কক্ষে বর্ণিত শিশু সদনের সভাপতি আবদুল গফফার (৬০) ও এতিমখানার শিক্ষক মোস্তফা মাহামুদের (৫০) নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হাতুড়ি ও ধারালো ছুরি দিয়ে হামলা চালায়। এতে সমাজসেবা কর্মকর্তা জনাব মোঃ আখলাকুর রহমান মারাত্মকভাবে আহত হন। তিনি বর্তমানে মাথায় জখম নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

১৯৯৭ সালে উপজেলার বড় হারজী গ্রামের আবদুল গফফার হাজী গুলশানআরা শিশু সদন নামে একটি এতিম খানা প্রতিষ্ঠা করেন। ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে ২০২ জন এতিম দেখিয়ে ১০১ জন এতিমের নামে বছরে ১২ লাখ টাকা সরকারি বরাদ্দ অনুমোদন করান। সম্প্রতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জিএম সরফরাজ এর কাছে ভুয়া এতিম দেখিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করেন বড় হারজী গ্রামের আলতাফ মাহামুদ। ইউএনও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোt সোহাগ হাওলাদারকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার দায়িত্ব প্রদান করেন। তিনি সরেজমিনে তদন্ত করে এতিম খানায় ৪১ জন এতিম পান এবং বর্ধিত বরাদ্দ বাতিলের সুপারিশ করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দেন। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ওই তদন্ত প্রতিবেদনসহ এতিমখানার বর্ধিত বরাদ্দ বাতিলের জন্য সমাজসেবা অধিদফতরে প্রতিবেদন পাঠান।

৩ জুন, ২০১৮ রোববার সকালে গত ছয় মাসের সরকারি বরাদ্দের ছয় লাখ টাকার বিল নিয়ে এতিমখানার শিক্ষক মোস্তফা মাহামুদ সমাজসেবা কর্মকর্তা মোt আখলাকুর রহমানের কাছে যান। তিনি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অনুমতি ব্যতীত বিল ছাড় দিতে অস্বীকৃতি জানান। বেলা তিনটার দিকে এতিমখানার সভাপতি আবদুল গফফার সমাজসেবা কর্মকর্তাকে টাকা ছাড় দিতে চাপ প্রয়োগ করেন। এতে তিনি রাজি না হলে গফফার ও মোস্তফা মাহমুদ সহ পাঁচ থেকে ছয় জন ব্যক্তি ধারালো অস্ত্র দিয়ে সমাজসেবা কর্মকর্তার ওপর অফিস কক্ষে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় হামলা করেন। এসময় সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মচারীরা গফফার ও মোস্তফা মাহামুদকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। বাকিরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হন।
মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজেসেবা অফিসার জনাব মোঃ আখলাকুর রহমান একজন নবীন কর্মকর্তা। তিনি অত্যন্ত মেধাবী। কিছু পূর্বেই তিনি তাঁর বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ শেষ করেছেন এবং এই প্রশিক্ষণে তিনি প্রথম স্থান অধিকার করেন। পাশাপাশি শ্রেষ্ঠ নিয়মানুবর্তী, সময়ানুবর্তী বিভাগে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার লাভ করেন। তার প্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ সরকার তাকে জাপানে উচ্চতর প্রশিক্ষণের জন্য প্রেরণ করেন। মেধাবী, দক্ষ, নীতিবান ও সৎ একজন সরকারি কর্মকর্তা অন্যায়ের কাছে মাথানত না করায় যে কাপুরুষোচিত হামলার শিকার হয়েছেন, তার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। জনাব মোঃ আখলাকুর রহমান, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, মঠবাড়ীয়া, পিরোজপুর এর ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপনের আহ্বান জানাই এবং সরকারের নিকট সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতকরণের দাবী জানাই।

জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, শরীয়তপুর আওতাভুক্ত সকল অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ

Total View: 1104
নিউটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য: