রেজি: নং - আবেদিত, প্রতিষ্ঠাকাল: ১মার্চ ২০১৪                                           বুধবার,  ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,  ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,  সকাল ৬:৫২

সুখের টানে ঘর ছেড়ে পরিনতি আত্মহত্যা।

December 9, 2019 , 5:16 pm

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ
সুপ্তা চৌধুরী।

প্রেমিকের হাত ধরে পরিবারের অমতে পালিয়ে বিয়ে করেছিলেন আকলিমা। ভেবেছিলেন স্বামী সংসারে সুখে থাকবেন। কিন্তু আকলিমার জীবনে সুখ আসেনি।
বিয়ের পর থেকেই আকলিমার উপর নেমে আসে অমানিশার অন্ধকার।
পনের বছরের দাম্পত্য জীবনে তাদের ঘরে দুই ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম নিলেও শান্তি আর ফিরে আসনি। শেষ পর্যন্ত জীবন দিতে হয়েছে আকলিমাকে।
সোমবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুর ১২ টার দিকে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার দূর্গম চরাঞ্চল কাঁচিকাটা ইউনিয়নের জবরদখল গ্রামে নিজ বসতঘর থেকে আকলিমার (৩০) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আকলিমা ওই গ্রামের গিয়াসউদ্দিন সরদারের ছেলে আল আমিন সরদারের স্ত্রী। আকলিমার পরিবারের অভিযোগ, আকলিমাকে হত্যা করে ঘরের আড়ার সাথে গলায় ওড়না পেচিঁয়ে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী আল আমিনকে আটক করেছে পুলিশ।

আকলিমার বড় ভাই সাইফুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, পাশাপাশি বাড়ি হওয়ায় ১৫ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে আকলিমাকে ভাগিয়ে ঢাকায় পালিয়ে যায় আল আমিন। সেখানে তারা বিয়ে করে কিছুদিন পর বাড়ি ফিরে আসে। বাড়ি ফিরে আসার পর থেকে আল আমিনের পরিবার আকলিমার উপর অত্যাচার নির্যাতন শুরু করে। পরে স্থানীয় মুরব্বীরা সালিশ দরবারে বসে আপোষ মিমাংসা করে দেন। মুব্বীদের সিদ্ধান্ত মতে আকলিমাকে তিন ভরি স্বর্ণালংকার ও আল আমিনকে যৌতুক হিসেবে ৭০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এর কিছুদিন পর তারা আবারও আকলিমাকে অত্যাচার নির্যাতন করতে থাকে। পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার কারনে আকলিমা মুখ বুজে সব অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেছে। পনের বছরে আল আমিনের পরিবারের অনেক দাবি মেটানো হয়েছে। এ পর্যন্ত আড়াই লাখ টাকা, তিন ভরি স্বর্ণালংকার ও চারটি গরু দেওয়া হয়েছে আম আমিনের পরিবারকে। কিন্তু তাতেও আল আমিনের পরিবার সন্তুষ্ট হতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত তারা আমার বোনটাকে মেরে ফেলেছে। আমরা এ হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি।

সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, ঘরের আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় গৃহবধু আকলিমার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। পদ্মার দূর্গম চরাঞ্চল হওয়ায় সেখান থেকে মরদের আনতে সময় লাগছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী আল আমিনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Total View: 979